• বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
নাচোলে আদিবাসীদের সবজি চাষ বিষয়ক প্রশিক্ষক ও বীজ বিতরণ রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক একীভূতকরণের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন কোটালীপাড়া চায়না জাল নিধন নাচোলে বজ্রপাতে ২জনের মৃত্যু হয়েছে নাচোলে এক মাদরাসায় দুই অধ্যক্ষের চেয়ার দখলের প্রতিযোগিতা কোটালীপাড়ায় জগন্নাথদেবের রথযাত্রা শুভ উদ্বোধন কোটালীপাড়ার চন্দ্রিমা পার্কের অশ্লীল নৃত্য বন্ধ করলো প্রশাসন রায়পুরা উপজেলা চেয়ারম্যান লাকীর দেয়া সাংবাদিকদের কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে গোপালগঞ্জে মানববন্ধন নাচোলে ৩দিন ব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলার সমাপনি সাবেক ভাইস-চেয়ারম্যান আবু তাহের খোকন এর ৫৬তম জন্মদিন উদযাপিত

পিল খাইয়ে নারী শিষ্যদের ধর্ষণ, ১০৭৫ বছরের জেল তুরস্কের টিভি ধর্মপ্রচারকের

Reporter Name / ২২৫ Time View
Update : বুধবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২১

নারীদের ওপর যৌন নির্যাতনসহ একাধিক অভিযোগে ৬৪ বছরের জনপ্রিয় টিভি ধর্মপ্রচারক আদনান ওকতারকে ১০৭৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে তুরস্কের আদালত।

সোমবার দেশটির একটি আদালতে ওকতারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি, নাবালিকাদের যৌন নির্যাতন, প্রতারণা এবং রাজনৈতিক ও সামরিক গুপ্তচরভিত্তিক কাজের অভিযোগ আনা হয়। পরে আদালত এ রায় দেন।

ওকতারের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, অশ্লীল পোশাক পরা নারী ঘেরা থাকতেন তিনি এবং তাদেরকে ‘বিড়াল ছানা’ বলে ডাকতেন ওকতার।

পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম ডন অনলাইন জানিয়েছে, আদনান ওকতার যখন সৃজনশীলতা এবং রক্ষণশীল মূল্যবোধের প্রচার করতেন, তখন নারীরা অর্ধনগ্ন পোশাকে টিভি স্টুডিওতে সংগীতকে উজ্জীবিত করার জন্য তার চারপাশে নৃত্য করতেন। ধারণা করা হচ্ছে, ওই নারীরা অনেকেই প্লাস্টিক সার্জারি করেছিল।

২০১৮ সালে দুই শতাধিকের বেশি অনুসারীসহ আদনান ওকতারকে গ্রেফতার করে ইস্তানবুল পুলিশ। তুর্কি সংবাদ মাধ্যম আনাদলু এজেন্সি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ধর্মপ্রচারক ফেতুল্লা গুলেনের নেতৃত্বে ২০১৬ সালে তুরস্কে ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানেও আদনান ওকতার জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

গার্ডিয়ান জানিয়েছে, এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আদনান ওকতার। যৌন নির্যাতনের ঘটনাকে তিনি শহরের কাল্পনিক গল্প বলে আখ্যায়িত করেছেন। এর আগে ডিসেম্বরে ওকতার বিচারককে বলেছিলেন, তার প্রায় এক হাজার গালফ্রেন্ড রয়েছে।

অক্টোবরে এক শুনানিতে ওকতার বলেছিলেন, নারীদের জন্য আমার হৃদয়ে ভালবাসা উপচে পড়া। প্রেম একটি মানবিক গুণ। এটি একটি মুসলিমের গুণ। আরেক শুনানিতে তিনি বলেন, আমি অসাধারণ শক্তিমান।

১৯৯০ সালে কয়েকটি কেলেঙ্কারির ঘটনায় ওকতারের নাম সামনে আসে। বিচারে একজন নারী আদালতকে জানান, তাকে ও অন্যান্য নারীদের তিনি যৌন নির্যাতন করেছেন। কিছু নারীদের তিনি ধর্ষণের পর জোর করে গর্ভনিধোরক বড়ি খাওয়াতেন। ওই নারী সেখানে ১৭ বছর বয়সে যোগ দিয়েছিলেন।

ওকতারের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ৯৬ হাজার গর্ভনিধোরক পিল উদ্ধার করেছে। এ বিষয়ে ওকতার জানান, এসব গর্ভনিধোরক বড়ি তিনি চর্ম রোগ ও নারীদের অনিয়মিত মাসিকের কাজে ব্যবহার করতেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category




error: Content is protected !!
error: Content is protected !!