• শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১১:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশের অভিযানে ৫টি চোরাই বৈদ্যুতিক মিটারসহ গ্রেপ্তার-১ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোঃসোলায়মান (বিশু)সম্পাদক একরামুল হক(পিন্টু) চাঁপাইনবাবগঞ্জে পৃথক ২টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত, সড়ক অবরোধ চাঁপাইনবাবগঞ্জে ডিএনসির অভিযানে ৪ কেজি গাঁজাসহ ১ ব্যক্তি গ্রেপ্তার অতিরিক্ত ভালোবাসা ঠিক নয় আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নাচোলে আওয়ামীলীগের বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত নাচোল উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত। সাংবাদিক কল্যাণ তহবিলের ত্রি-বার্ষিকী কমিটি গঠন সভাপতি আসাদুল্লাহ, সম্পাদক শাকিল সাংবাদিক কল্যাণ তহবিলের কমিটি গঠন, সভাপতি আসাদুল্লাহ, সম্পাদক শাকিল ৭দশক পর নাচোলে ইলামিত্র সংগ্রহশালার উদ্বোধণ

তরুণীকে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করায় মায়ের বিরুদ্ধে মামলা 

Reporter Name / ১৮৩ Time View
Update : বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১

তরুণীকে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করায় মায়ের বিরুদ্ধে মামলা 

বিশেষ প্রতিনিধি : নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আলাইয়াপুর ইউনিয়নে মাদ্রাসাছাত্রীকে একাধিক বার দলবদ্ধ ধর্ষণ, ভিডিও ধারণ ও অপহরণের ঘটনায় করা মামলার বাদী বিউটি আক্তারের বিরুদ্ধে এবার মামলা করেছে পুলিশ। অভিযোগ রয়েছে বিউটি নিজের মেয়েকে(১৭) জোর করে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করে।

মামলায় বিউটি ছাড়াও আলাইয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানসহ আরও পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। ঘটনার প্রতিবাদে ও দোষীদের বিচারের দাবিতে স্থানীয় লোকজন বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি করেছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে বেগমগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন বাদী হয়ে এ মামলাটি করেন।

পুলিশ জানায়, মামলায় অভিযুক্ত ১ নম্বর আসামি গত বৃহস্পতিবার রাতে তার মেয়েকে(১৭) ধর্ষণ, বিবস্ত্র করে ছবি ধারণ ও অপরহরণ করা হয়েছে অভিযোগ এনে চারজনের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা করেন।

মামলার সূত্র ধরে অভিযান চালিয়ে আসামি ফয়সাল, সাইফুল ইসলাম ইমন ও জোবায়েরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকার সাভারের পুরগাও এলাকার রুবি নামে একজনের বাসা থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরদিন ভিকিটিম অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৩ এ বিচারকের কাছে স্বেচ্ছায় ২২ ধারায় জবানবন্দি দেন।

পুলিশ জানায়, জবানবন্দি ও মামলার তদন্ত করতে গিয়ে জানা গেছে ২০১৮ সালে ভিকটিম ধীতপুর দারুল উলুম দাখিল মাদ্রাসায় অষ্টম শ্রেণিতে পড়া লেখা করতো। ২০১৭ সাল থেকে ২৮ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত ভিকটিমকে দিয়ে তার মা বিউটি আক্তার জোর পূর্বক টাকার বিনিময়ে দেহ ব্যবসা করাতেন। বিভিন্ন লোকের কাছে থেকে টাকা নিয়ে নিজের মেয়েকে কখনো নিজ বাড়িতে, কখনো ঢাকা-চট্টগ্রামে যৌন কাজের জন্য পাঠাতেন বিউটি।

বিষয়টির প্রতিবাদ করলে কয়েকবার মেয়ের হাত-পা বেঁধে মারধর করেন বিউটি। আগের মামলার সাক্ষী ও বর্তমান মামলার আসামি মোজ্জামেল হোসেন বিউটিকে টাকা দিয়ে ঘরে এসে ওই ছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতেন।

একরাতে মোজাম্মেলের সঙ্গে যৌন কাজে লিপ্ত হলে স্থানীয় ফয়সাল ও জোবায়ের দেখে তাদের দুজনের বিবস্ত্র ছবি ও ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে। পরে মোজাম্মেলকে বের করে দিয়ে ওই রাতে ভিকটিমকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করে ফয়সাল ও জোবায়ের। পরে বিউটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানের থেকে টাকা নিয়ে তার বাড়িতে পাঠায় মেয়েকে। চেয়ারম্যান আনিস নিজ বাড়িতে রেখে একাধিকবার ধর্ষণ করেন মাদ্রাসাছাত্রীকে।

এদিকে ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে মঙ্গলবার বিকালে আলাইয়াপুর ৬ নম্বর ওয়ার্ড নাফিতের পোল এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও হীরাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করে এলাকাবাসী।

পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভিকটিম ও গ্রেপ্তার আসামিদের জবানবন্দির আলোকে পতিতাবৃত্তির উদ্দেশ্যে ওই ছাত্রীকে শারীরিক নির্যাতন, আটক রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্যকরণ, অবৈধভাবে অর্থের বিনিময়ে যৌন শোষণ ও স্থানান্তরিত করে যৌনকর্ম করার অপরাধে বিউটি ও চেয়ারম্যানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মানবপাচার ও দমন আইনে মামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার বিউটিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। চেয়ারম্যান আনিসসহ মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

বেগমগঞ্জ থানার ওসি কামরুজ্জামান সিকদার জানান, মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ, অপরহণ, নগ্ন ভিডিও ধারণের ঘটনায় আগে দুটি ও মানবপাচার দমন আইনে আরও একটি মামলা হয়েছে। মামলায় মোট পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category




error: Content is protected !!
error: Content is protected !!