আজ বৃহস্পতিবার, ০৪ Jun ২০২০, ০৬:১৩ অপরাহ্ন
Smiley face

গোমস্তাপুরে বোরো ধানের ফলনে রেকর্ড করেছে ব্রি ধান-৮১

শফিকুল ইসলাম,গোমস্তাপুর:
চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলায় এবার বোরো ধানের ফলনে নতুন মাইল ফলক তৈরি করেছে ব্রি ধান-৮১। উপজেলায় এবার মোট আবাদী জমির মধ্যে ২ হাজার ৬ শত হেক্টর জমিতে এ ধানের চাষ করা হয়েছে। চলতি বছরে উপজেলায় মোট ১৫ হাজার ৫০ হেক্টর জমিতে ২০টি জাতের ধান চাষ করে ৬৬ হাজার ২শ ২০ মেট্টিন বোরো ধান উৎপাদন হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন জাতের মধ্যে জিরা জাতের ব্রি ধান-৮১ চাষ করে কৃষকরা ধারণাতীত ফলন পেয়েছে। এর পেছনে কাজ করেছেন এলাকার কৃতি সন্তান কৃষি মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব কমলা রঞ্জন দাস। এ জন্য তিনি ব্রি’র সকল প্রকার প্রণোদনা এলাকার কৃষকদের প্রদান করেছেন। আর উপজেলা কৃষি অফিসার মাসুদ হোসেন এলাকার কৃষকদের এ ধান চাষে উৎসাহিত করেছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান এলাকার কৃষকরা তার কথা শুনে প্রায় ২ হাজার
৬শ হেক্টর জমিতে ব্রি ধান-৮১ চাষ করে বিঘা প্রতি প্রায় ৩০-৩৫ মণ ধান উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছে। সম্প্রতি এ ধানের মাঠ দিবসে উপস্থিত হয়ে ব্রি’র মহাপরিচালক গোমস্তাপুর উপজেলায় এ ধানের উৎপাদন দেখে আশ্চর্য হয়েছেন। তিনি আরো জানান, এ ধান চাষ করে এবার কৃষক অন্যান্য ধানের চেয়ে প্রায় ১০ কোটি টাকা অতিরিক্ত লাভবান হবে। আর সংশ্লিষ্ট গবেষনা প্রতিষ্ঠান কৃষকদের উৎপাদিত ধান বীজ আকারে ক্রয় করবে। এ ধান উৎপাদনকারী কৃষকরা জানান, এ ধান উৎপাদনে খরচ অনেক কম । তাছাড়া দূযোর্গপূর্ণ আবহাওয়া সহিষ্ণু ও ফলনও আশাতীত। এবার উপজেলায় আবাদ করা বোরো ধানের মধ্যে জিরাশাইল ধান আবাদ করা হয়েছে ৪ হাজার ৯ শত ৯৪ হেক্টর জমিতে। ২য় স্থানে রয়েছে ব্রি ধান-৩৬, যা আবাদ করা হয়েছে ২ হাজার ৮ শত ৫০ হেক্টর জমিতে ও ৩য় স্থানে ব্রি-ধান-৮১ যা আবাদ করা হয়েছে ২ হাজার ৬ শত হেক্টর জমিতে। উল্লেখ্য এবার গত বারের চেয়ে ৬ শত হেক্টর বেশি জমিতে বোরো ধানের আবাদ করা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবং করোনার কারনে পরিবেশের ভারসম্য বজায় থাকায় কৃষক ধানে কীটনাশক কম প্রয়োগ করেছে। ফলে এবার ধান অনেকটা কীটনাশকমুক্ত ভাবে উৎপাদিত হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
error: Content is protected !!