আজ সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ১২:১০ অপরাহ্ন
Smiley face

হোসেনপুরে রৌদ্র,বৃষ্টি উপেক্ষা করে করোনা প্রতিরোধে যুদ্ধ করে যাচ্ছেন এসিল্যান্ড ওয়াহিদুজ্জামান

স্টাফ রির্পোট : পাণঘাতী নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণে রৌদ্র,বৃষ্টি উপেক্ষা করে, অদৃশ্য শক্তির সাথে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে যাচ্ছেন কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান।


তিনি করোনা ভাইরাস সংক্রমন ও প্রতিরোধে রাতদিন নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। স্বাস্থ্য ঝুঁকি যেখানে প্রতি মুহূর্তে তাড়া করে ফিরে তবুও ভালো থাকুক প্রিয় হোসেনপুর বাসী ! ভালো থাকুক প্রিয় মুখগুলি এই প্রত্যয় নিয়ে সরকারি নির্দেশনায় উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার হাট-বাজারে জনসচেতনতা তৈরী, সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণ, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমুল্য বৃদ্ধিরোধে নিয়মিত হাটবাজার মনিটরিং,অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে জরিমানাসহ চালিয়ে যাচ্ছেন তার নানামূখি কার্যক্রম।

এরই ধারাবাহিকতায় আজ বুধবার (২০ মে ) সকালে ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে হোসেনপুর বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম স্থিতিশীল রাখতে, শপিংমল,বিপনী বিতানে সামাজিক দুরত্ব ও সরকারি স্বাস্থ্য বিধি নিশ্চিতকরণে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান। এসময় সরকারি আদেশ অমান্যকরণে দন্ডবিধি ১৮৬০ এবং সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ অনুযায়ী মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১০টি মামলায় মোট ৯০০০/-( নয় হাজার ) টাকা জরিমানা করা হয়। এ কাজে সহযোগিতা করেন কিশোরগঞ্জ ব্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১৪ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী । এসময় উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র আব্দুল কাইয়ুম খোকন,স্যানিটারী ইন্সপেক্টর মোছা: নাহিদা সুলতানা, ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

সূত্রমতে : নিজের জীবনের নিরাপত্তার কথা না ভেবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, অসহায় মানুষের কাছে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছানো, দ্রব্যমূল্যের বাজার নিয়ন্ত্রণ এবং মানুষকে ঘরে ফেরাতে কাজ করছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান। যেন প্রতিনিয়ত করোনার সাথে যুদ্ধ করে চলেছেন তিনি। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে তিনি সেনবাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে দিনরাত মাঠে নিরলস ভাবে কাজ করছেন । করোনা মোকাবেলায় সরকারি আদেশ/নির্দেশনা অমান্যকরনে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এ পর্যন্ত তিনি ২৪৬ টি মামলায় মোট ২,৬৪,৮০০ (দুই লক্ষ চৌষট্টি হাজার আটশত) টাকা জরিমানা আদায় করেছেন।

সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। স্বাস্থ্য ঝুঁকি যেখানে প্রতি মুহূর্তে তাড়া করে ফিরে তবুও ভালো থাকুক প্রিয় হোসেনপুর বাসী ! ভালো থাকুক প্রিয় মুখগুলি!! রৌদ্র,বৃষ্টি উপেক্ষা করে, অদৃশ্য শক্তির সাথে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে দায়িত্ব পালন করছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
error: Content is protected !!