রাজশাহীর আরেক শাহেদ- প্রতারক রানার ভয়ংকর তথ্য -তদন্তে পুলিশ

প্রকাশিত: ৯:৪৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

নুরজামাল ইসলামঃ

চাঁপাই নবাবগঞ্জের ভোলাহাট থেকে রাজশাহীতে প্রবেশকারি সেই এম এস রানার কয়েক ডজন অনিয়মের সুত্র নিয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

তবে মাঠে নেমেই অবাক হয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা। প্রতারক রানা বিভিন্ন সময় নাম ও ঠিকানা পরিবর্তনের কারনে অনেকটাই তদন্তে জটিল হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা। সর্ব শেষ প্রতারক রানা রাজশাহীর শাহমখদুম থানা এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন, আর সেখান থেকেই নওগাঁর সদর থানার চক মহাদেব এলাকার একজন অবসর প্রাপ্ত বিজিবি সদস্যের মেয়ের সাথে বিয়ে ও প্রতারনা করেন রানা।

রাজশাহী নগরীর মথুর ডাঙ্গা এলাকার ঠিকানা দিয়ে বগুড়ার আদমদিঘী এলাকার এক সম্মানী ঘরে বিয়ে করেন এই প্রতারক। বিয়ে করেই করেন আরেক নতুন প্রতারনা। একই এলাকার ঠিকানা দিয়ে নিজেকে সরকারি চাকরি জিবী পরিচয় দিয়ে রাজশাহীর মহিষ বাথান এলাকার সোলমান শেখের মেয়েকে বিয়ে করে সেখানেও করেন প্রতারনা ।

২০১৮ সনে শ্রিরামপুর বালিয়া ডাং গোদাগাড়ির নাদের আলির মেয়েকে ভুয়া পরিচয় দিয়ে বিয়ে করেন। এ ছাড়াও মতিহার থানাধীন বিনোদপুর এলাকায় তার সাবেক স্ত্রী ও একটি কন্যা সন্তানের সন্ধান মিলেছে। প্রতারক রানার ফাঁদে যারা আটকা পড়েছিলেন তাদের অনেকের নাম অসামাজিক ছবি সহ সকল কিছুই বেরিয়ে এসেছে যা প্রকাশ করলে বিশ্ব প্রতারক সাহেদ কেও হারমানাবে।

প্রতারক এম এস রানার আসল বাড়ি ভোলাহাট তার বাবার নাম নিজাম উদ্দিন। রানার ফেসবুকে প্রতারনার অনেকের সন্ধান মিলেছে তাদের মধ্যে একাধিক যুবলীগের পদধারী মেয়েরাও রয়েছে। তবে বিথি, লিজা, সুমাইয়া, সারমিন, বাবলি, নামের ডজন মেয়ের চ্যাটিং ও অসামাজিক কথা বার্তার যথেষ্ট প্রমান এসছে গনমাধ্যমের হাতে। এদের কিভাবে ব্ল্যাকমেইল করতো রানা সেটির ও অনুসন্ধান চলছে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কারি কর্মকর্তা।

নওগাঁর একাধিক জায়গায় মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ও এসেছে এই প্রতারক রানার বিরুদ্ধে। বর্তমানে শাহমখদুম থানার পাশাপাশি প্রশাসনের অন্য সদস্যরাও অনুসন্ধানে নেমেছে এই রানার প্রতারনার আলামত খুজতে। রানার প্রতারনার শিকার এক তরুণী জানান আমি পরে বুঝতে পারি সে একটা প্রতারক অশিক্ষিত। সে নিজে ৩য় শ্রেনি পাশ না করেই শিক্ষিত দাবী করেন। তার শিক্ষাগত যোগ্যতা যাচাই করার দাবী ও জানান সেই তরুণী। উল্লেখ থাকে যে প্রতারনা ও নারী নির্যাতন মামলায় এই রানাকে আটক করেন পুলিশ

Smiley face