১ বছর ৯ মাস থেকে নিখোঁজ হেলপার বাবু, এখনো অপেক্ষায় অসহায় মা

প্রকাশিত: ৭:৩৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৮, ২০২০

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শহরের বিশ্বরোড মোড় হতে ২০১৮ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারী রাত আনুমানিক ৮টার দিকে নিখোঁজ হয় সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের আকুন্দবাড়িয়া এলাকার মোসা. মানুয়ারা বেগমের ছেলে রবিউল ইসলাম বাবু (১৬)। ১ বছর ৯ মাস আগে হারিয়ে গেলেও এখনো হেলপার বাবুর অপেক্ষায় রয়েছেন স্বামী হারা মানুয়ারা বেগম। মনেপ্রাণে বিশ্বাস করেন, ফিরে আসবেন ছেলে। নিখোঁজের পর বাবুর মা থানায় বিষয়টি জানালে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীও তাকে খোঁজার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

নিখোঁজ রবিউল ইসলাম বাবুর মা মানুয়ারা বেগম বলেন, ছেলেকে হারিয়ে আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। নিখোঁজের পর হতে পিতৃহারা ছেলেকে হন্নে হয়ে খুঁজি বেড়িয়েছি। তবে এখনো বিশ্বাস করি, আমার ছেলে আমার কাছে আবারো ফিরে আসবে। সেই আশায় এখনো ছেলের অপেক্ষায় আছি। রবিউল ইসলাম বাবুর ছবি শেয়ার দিয়ে তাকে মায়ের কোলে ফিরে আসতে সহায়তা করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান তার মা মানুয়ারা বেগম।

জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারী চট্রগ্রাম থেকে একটি ট্র্যাকের হেলপারী করে এসে চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিশ্বরোড মোড় হতে নিখোঁজ হয় বাবু। নিখোঁজ হওয়ার আগে বাবু সর্বশেষ ছিলো ট্র্যাক ড্রাইভার চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার শিয়ালা কলোনী এলাকার মো. হামেদ আলীর ছেলে মো. তুফানীর (৩০) সাথে।

ট্র্যাক ড্রাইভার তুফানী জানান, আমার নিয়মিত হেলপার মন্ডুমালা গ্রামের সুমনের বউয়ের ডেলিভারি থাকার কারনে সেদিন সে আমার সাথে আসতে পারেনি। তাই অন্য একজনের মাধ্যমে সোনামসজিদ থেকে চট্রগ্রামগামী পেঁয়াজ ভর্তি ট্র্যাকের বদলী হেলপার হিসেবে নিয়ে যায় বাবুকে। ২৫ ফেব্রুয়ারী রাত ৮টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ফিরে আসার পর তাকে পারিশ্রমিক বাবদ ৭’শ টাকা দিয়ে বিদায় করি। তিনি আরো বলেন, সেদিন রাতের পর থেকে তার আর কোন খোঁজ মিলেনি। নিখোঁজের পর আইন শৃঙ্খলা বূহিনী, তার পরিবারের সদস্যরা ও আমি নিজেও অনেক খোঁজাখুজি করেছি, কিন্তু কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

কোন ব্যক্তি হেলপার রবিউল ইসলাম বাবুকে দেখতে পেলে বা তার খোঁজ পেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেকের ০১৭২১৮৯৮০৬৬ মোবাইল নম্বরে অথবা সংশ্লিষ্ট থানায় যোগাযোগের জন্য অনুরোধ করেন তিনি।