বউভাতে মাংস কম দেয়ায় কনেপক্ষের হামলায় বরের চাচা নিহত

প্রকাশিত: ৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৭, ২০২১

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় বউভাতের অনুষ্ঠানে মাংস কম দেয়া নিয়ে সংঘর্ষে কনেপক্ষের হামলায় বরের চাচা নিহত হয়েছেন।

নিহতের নাম আজহার মীর (৬৫)। তিনি উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ রফিয়াদি গ্রামের মৃত মৌজে আলী মীরের ছেলে।

মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ রফিয়াদি গ্রামের মীরবাড়িতে বউভাতের অনুষ্ঠানে এ হামলার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।.

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে এয়ারপোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ বিন ইসলাম বলেন, বউভাতের অনুষ্ঠানে মাংস কম দেয়া নিয়ে সংঘর্ষে কনেপক্ষের হামলায় বরের চাচা নিহত হয়েছেন।.

ওসি বলেন, ঘটনার পর বরপক্ষের লোকজনকে আটকে রাখেন কনেপক্ষের লোকজন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। বরের চাচা নিহতের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চাঁদপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান সবুজ খান বলেন, উপজেলার দক্ষিণ রফিয়াদি গ্রামের মোতাহার মীরের ছেলে সজীব মীরের সঙ্গে বরিশাল নগরীর কাউনিয়া সাবান ফ্যাক্টরি এলাকার আবুল কালাম হাওলাদারের মেয়ে রুনা বেগমের বিয়ে হয়।.

দুদিন আগে রুনাকে বাবারবাড়ি থেকে শ্বশুরবাড়ি নেয়া হয়। মঙ্গলবার সেখানে বউভাতের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এদিন কনের বাড়ি থেকে ৪৮ জন অতিথি অনুষ্ঠানে যান। তাদের আপ্যায়ন করেন বরপক্ষের লোকজন।

খাবার খাওয়ার একপর্যায়ে মাংস কম দেয়াকে কেন্দ্র করে কনেপক্ষের সঙ্গে বরপক্ষের স্বজনদের তর্কাতর্কি শুরু হয়। এরপর দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

একপর্যায়ে কনেপক্ষের মারধরে বরের চাচা আজহার মীর ঘটনাস্থলেই নিহত হন। স্থানীয়রা কনের বাবা আবুল কালাম হাওলাদারসহ কনেপক্ষের কয়েকজনকে ঘটনাস্থলে আটকে রাখেন। পরে পরিস্থিতি শান্ত হয়। সূএ:পূর্বপশ্চিমবিডি