• শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৫:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
গোদাগাড়ীতে পুরুষ সেজে চাচিকে ভাগিয়ে বিয়ে করলেন তরুণী অপহরণের ১৪ দিন পর কিশোরীকে উদ্বার করল র‍্যাব-৫ কানসাট ইউপি নির্বাচনে আজ প্রতীক বরাদ্দ, দুজনের মনোনয়ন প্রত্যাহার নাচোল সমাজসেবা অফিসের কর্মী শামীমের লাশ দাফন সম্পন্ন মডেল প্রেসক্লাব পাবনা’র পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হল উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএনপির আহবায়ক কমিটি থেকে তৃর্ণমূলের ৬১ জন নেতাকর্মীর পদত্যাগ সাপাহারে ছিনতাইকৃত মোটরসাইকেল উদ্ধার : আটক-২ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি শিবগঞ্জ থানার চৌধুরী জোবায়ের, এসপির দিকনির্দেশনা মানিকগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র গ্রেফতার, প্রতিবাদে বিক্ষোভ নাচোলে সমাজসেবা অফিসের ইউনিয়ন সমাজসেবা কর্মী শামীম রেজার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার।

ভার্মি কম্পোষ্ট সার উৎপাদনে স্বাবলম্বী চাঁপাইনবাবগঞ্জের আযম

Reporter Name / ৭৩ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২১

মোঃ সেতাউর রহমান, শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ:
চাঁপাইনবাবগঞ্জে জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার কর্নখালি গ্রামের আলহাজ খাইরুল
বাসারের ছেলে গোলাম আযম “ আওয়াল সিডি ভার্মি কম্পোষ্ট সার” নামে ভার্মি
কম্পোষ্ট সার তৈরী করে আসছেন বিগত ২০১৩ সাল থেকে। এ পর্যন্ত কেঁচো
ভার্মি কম্পোষ্ট সার তৈরী করে স্বাবলম্বী হয়েছেন তিনি। বিভিন্ন ব্যবসা
বানিজ্য করতে গিয়ে বড় ধরণের ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে মানুষের কাছে ঋণগ্রস্থ হয়ে
পড়েন। ভার্মি কম্পোষ্ট সার তৈরী করে ঋণমুক্ত হয়ে এখন জীবনে আশার আলো
দেখছেন বলে তিনি জানান, আমি পত্রিকার মাধ্যমে কেঁচো সারের গুনাগুন এবং
চাহিদা সবকিছু জানার পর ভার্মি কম্পোষ্ট সার তৈরী করা শুরু করি। বর্তমানে
সব ব্যবসা ছেড়ে ভার্মি কম্পোষ্ট সার তৈরীর খামার নিয়ে ব্যস্ত সময় পার হয়।
এই শিল্পে আমি এতে সফলতার সফলতা অর্জন করেছি।
ভার্মি কম্পোষ্ট সার তৈরী করার ফলে একদিকে সুসম জৈব সার পাওযা যাচ্ছে।
অপরদিকে বায়ো গ্যাসের মাধ্যমে পরিবারের রান্না বান্নার কাজ সারা বছর বিনা
খরচে করা হয়। রান্নার জন্য আলাদাভাবে কোন জ্বালানী খড়ি কিনতে হয়না গোলাম
আযমকে।
ভার্মি কম্পোষ্ট সার একটি সুসম জৈব সার। এর কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া
থাকেনা। জমিতে উপর্যুপরি রাসায়নিক সার ব্যবহার করার ফলে জমির শক্তি
ক্রমান্নযে কমে আসে। রাসায়নিক সার ব্যবহার করার ফলে জৈব সারের ব্যবহার
অনেকাংশে কমে গেছে। ভার্মি কম্পোষ্ট সার জমিতে ব্যবহার করার ফলে জমি তার
উর্বরতা শক্তি ফিরে পাচ্ছে। ফলে আগের তুলনায় ফলন বেড়ে গেছে অনেকগুন বেশি।
তাছাড়া ছাদ কৃষিতে ভার্মি কম্পোষ্ট সারের চাহিদা শতভাগ বেড়েছে। চাহিদা
বেড়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোল, গোমস্তাপুর, রহনপুরসহ বরেন্দ্র
এলাকায় বিভিন্ন জাতের ফলের বাগানে।
গোলাম আযমের কেঁচো ভার্মি কম্পোষ্ট তৈরী করা দেখে প্রায ২০ জন উদ্যোক্তা
ভার্মি কম্পোষ্ট সার তৈরী করা শুরু করেছেন। মোঃ দুরুল, জীবন শেখ, খাইরুল
ইসলাম, রয়েলসহ আরো কয়েকজন উদ্যোক্তা জানান, আমরা গোলাম আযমের খামারে
তৈরী ভার্মি কম্পোষ্ট সার দেখে উদ্বুদ্ধ হয়ে আমারও ভার্মি সার তৈরী করা
শুরু করেছি। এতে আমরা অনেক লাভবান হয়েছি। তাছাড়া রাসায়নিক সার ব্যবহার
করার ফলে জমি তার উর্বরতা শক্তি হারিয়ে ফেলেছিলো। ভার্মি কম্পোষ্ট সার
দিয়ে চাষ করে জমির উর্বরতা শক্তি ফিরে এসেছে। আগের তুলনায় জমিতে ফলন ভাল
হচ্ছে।

এব্যাপারে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কৃষি অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মো. নজরুল
ইসলাম জানান, ভার্মি কম্পোষ্ট সার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ামুক্ত একটি
শক্তিগুন সম্পন্ন জৈব সার। জমির কোন ক্ষতি করেনা। এই সার ব্যবহারের ফলে
রাসায়নিক সারের ব্যবহার অনেকাংশে কমে গেছে। আমরা ভার্মি কম্পোষ্ট সার
তৈরীতে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করে আসছি তা ভবিষ্যতে অব্যাহত থাকবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category