চাঁপাইনবাবগঞ্জে এনজিওর মালিক কর্তৃক ঋণ গ্রহীতার মাথা ফাটানোর অভিযোগ

প্রকাশিত: ১২:৩৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২১

চাঁপাইনবাবগঞ্জে এনজিওর মালিক কর্তৃক ঋণ গ্রহীতার মাথা ফাটানোর অভিযোগ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে সূর্যমুখী কৃষি উন্নয়ন সংস্থার পরিচালক মাসুম ১০ হাজার ঋণের টাকার জন্য নাচোল উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের বাহির মল্লিকপুর গ্রামের মৃত নুরুল আমিনের ছেলে হতদরিদ্র অসহায় ঋনগ্রহীতা রুবেল ইসলাম(৩৫) এর লোহার তালা দিয়ে মাথা ফাটালেন। ভুক্তভোগী রুবেল বলেন আমি সূর্যমুখী কৃষি উন্নয়ন সংস্থা হতে ১০ হাজার টাকা ঋণ তুলি তারপর প্রায় চার হাজার টাকা পরিশোধ দিই এর মধ্যে কিডনিতে পাথর হওয়ায় দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর ধারদেনার মাধ্যমে অনেক কষ্টে টাকা জোগাড় করি তারপর চিকিৎসা করে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ি,পরে একটু সুস্থ হয়ে পরিবারের খরচ ও ধার পাওনা শোধ করার জন্য তেলের কারখানায় শ্রমিকের কাজের সন্ধান পাই, কিছু দিন পরে শুনতে পাই এনজিওটি জনগণের কাছ থেকে অনেক টাকা পয়সা নিয়ে উধাও হয়ে গেছে। পরবর্তীতে এখন সুস্থ হয়ে তেলের মিল কারখানায় শ্রমিকের কাজ করছি এনজিওর কর্মকর্তা মাসুম টাকা নিতে আসলে বলি একটু সময় দিন আপনার বাকি টাকা পরিশোধ করে দিব এই বলে নিজ কর্মস্থলে কাজ করতে থাকি, কিন্তু মাসুম ও তার চাচাতো ভাই সুমন আংগুল দেখিয়ে বলে এক্ষুনি টাকা দে আর না হলে ঘর থেকে বের হতে দিব না ।তোকে মেরে ফেলবো এরইমধ্যে মিলের দরজায় ঝুলে থাকা তালা দিয়ে চোরের মত বেধড়ক মারপিট করতে থাকে এবং সজোরে মাথায় একাধিক আঘাত করলে সাথে সাথে আমার মাথা ফেটে রক্ত পড়তে থাকে, রক্তঝরা অবস্থায় ঘরের মধ্যে মাটিতে নুয়ে পড়ি পরে স্থানীয় লোকজন আমাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত ডাক্তার বলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী নিয়ে যেতে হবে।

মেসার্স গিয়াস উদ্দিন তেল মিলের মালিক (ফরু) বলেন আমার শ্রমিক রুবেলকে মারার জন্য এনজিও কর্মকর্তা নিষ্ঠুর মাসুম আগে থেকে পরিকল্পনা নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে নাচোল থানার ওসি জনাব সেলিম রেজার নিকট মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।