• বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম
রাজসম্মান-ধন সব ছেড়ে ভালোবাসার মানুষকে বিয়ে রংপুর জেলা প্রশাসনের সহায়তায় বিক্রি হওয়া শিশুকে ফেরত পেল পরিবার নাচোলে বিদ্যুৎ এর ৪০০/১৩২ কেভির সাবস্টেশন নির্মানের ফলে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি, প্রতিকার চেয়ে ইউএনও বরাবার আবেদন গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্সের বিরুদ্ধে অশালীন আচরণের অভিযোগ নাচোলে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত পটুয়াখালীতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান : জরিমানা ৮১ হাজার টাকা। নোয়াখালীতে অবৈধ সিএনজি-রিকশা স্ট্যান্ড উচ্ছেদ করায় ২ আনসার সদস্যকে ছুরিকাঘাত করেছে চাঁদাবাজরা গোমস্তাপুরে চেয়ারম্যান পদে ২ জন ও সদস্য পদে ১৫ জনের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার  গোমস্তাপুর বিভিন্ন সম্প্রদায়ের সম্প্রীতি সভা অনুষ্ঠিত গোমস্তাপুরে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হচ্ছেন ৩ ইউপি সদস্য 



ইনজেকশন পুশ করার সাথে সাথেই মৃত্যু হলো নিশির!

Reporter Name / ৪৫ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২১



মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে ০৭ এপ্রিল বুধবার দুপুর ২টায় নিশি (২৫) নামের এক নারীকে নিয়ে উপজেলার ঝুমর সিনেমা হল সংলগ্ন রাণী জেনারেল হাসপাতালে ডাক্তার দেখাতে ঢোকেন তার স্বজনরা। হাসপাতলের চিকিৎসক সৈয়দ আবু সাঈদ তাকে ইনজেকশন পুশ করলে কিছুক্ষনের মধ্যে গৃহবধু নিশি নিস্তেজ হয়ে পরলে নার্স ও চিকিৎসক নিশির স্বজনদের সাথে সাথে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যেতে বললে তারা নিয়ে যায়।

এসময় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ প্রহলাদ কৃষ্ণ বর্মণ জানান, তিনি আগেই মৃত্য বরণ করেছেন। সাথে সাথে নিশির স্বজনরা লাশ নিয়ে রাণী জেনারেল হাসপাতালে চলে আসেন।

এসময় রাণী হাসপাতালের ডাক্তার, নার্স,কর্মরত কর্মচারী সহ মালিক পক্ষের সাবাই পালিয়ে যায়। কাউকে না পেয়ে রোগীর স্বজনরা লাশ নিয়ে অবস্থান নেয়। তাদের আহাজারিতে হৃদয় বিদারক পরিস্থিতি তৈরি হয়। পরে পুলিশ এসে হাসপাতালটির মালিক হারুন-অর-রশিদকে ডেকে আনেন। নিশি বালাশুর বানিয়া বাড়ী এলাকার দ্বীন ইসলামের স্ত্রী। সে তার স্বামীর সাথে ঢাকায় বসবাস করতো।

এব্যাপারে শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হেদায়াতুল ইসলাম ভূঞা বলেন, রোগীর স্বজনরা লাশ নিয়ে গেছে। তারা থানায় কোন লিখিত অভিযোগ দায়ের করেননি।

স্থানীয়রা জানায়, রানী হাসপালের বিরুদ্ধে এর আগেও অপচিকিৎসার অভিযোগ রয়েছে। একারনে ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসের শেষের দিকে অনিয়মের অভিযোগে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ও ১ ভুয়া চিকিৎসককে ১ মাসের জেল প্রদান করেন। এর আগে ২০১৬ সালে হাসপাতালটিতে ১ প্রসূতির মৃত্যুর ঘটনায় রোগীর স্বজনরা হাসপাতালটিতে চড়াও হলে র‌্যাব ও পুলিশ ২ ঘন্টার চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এঘটনায় ডাক্তার-কর্মচারী সহ পুলিশ ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছিল। একই বছর র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক মোঃ সারোয়ার আলম প্রতিষ্ঠানটিকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছিল। স্বাস্থ্য সেবার নামে প্রতিষ্ঠানটি একের পর এক অনিয়মের ঘটনায় সাধারণ মানুষ প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে।




আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category