যৌন হয়রানি করা সেই প্রধান শিক্ষকের অপসারন ও শাস্তির দাবিতে নাগরপুরে মানববন্ধন

Rubel Rubel

Islam

প্রকাশিত: ৫:০৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২১, ২০২০

মোঃ আব্দুর রাজ্জাক রাজা
নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ
যৌন হয়রানির অভিযোগে দায়ের করা মামলার অন্যতম আসামী টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও পচাসারটিয়া মেহের আলী খান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ফরহাদ আলীর (৪৫) অপসারন ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। সোমবার সকালে পচাসারটিয়া মেহের আলী খান স্কুল মোড়ে সচেতন শিক্ষার্থী, যুব সমাজ ও গ্রামবাসির উদ্যোগে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। এর আগে চৌবাড়িয়া-পচাসারটিয়া বাজার থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে স্কুল মোড়ে এসে মানববন্ধনে মিলিত হয়। মানববন্ধনে বক্তারা চরিত্রহীন লম্পট শিক্ষক ফরহাদ আলীকে অবিলম্বে অপসারন ও আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানানো হয়।

এ সময় অন্যান্যর মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মো. উজ্জল হোসেন, মো. জুয়েল সিকদার, মো. নাছির হোসেন, মো. নাজমুল খান, মো. জাকির হোসেন, মো. আমানুল্লাহ, মো. সবুজ মিয়া ও শওকত হোসেন প্রমুখ।
প্রসঙ্গত: উপজেলার ভারড়া ইউনিয়নের ভারড়া গ্রামের হত দরিদ্র কাঠ মিস্ত্রী আ.মোতালেবের স্ত্রী (৩৭) কে চাকুরী দেয়ার সূত্র ধরে তার সাথে ঘনিষ্ঠ হন পচাসারটিয়া মেহের আলী খান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.ফরহাদ আলী। ওই নারীর দারিদ্রতার সুযোগ নিয়ে মোবাইল ফোনে ও সরাসরি প্রতিনিয়ত শারিরিক মিলনের জন্য কু-প্রস্তাব দিতে শুরু করে। কু-প্রস্তাবের একাধিক অডিও ক্লিপস ভাইরাল হলে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী নারী গত ০৯ নভেম্বর টাঙ্গাইলের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নাগরপুর আমলী আদালতে ৩ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন কে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। (মামলা নং ২১৫/২০২০)। মামলাটি বিজ্ঞ আদালত সুষ্ঠ্য তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল ডি.বি দক্ষিন কে নির্দেশ দেন। এর পর থেকে ঐ শিক্ষকের বিচার ও শাস্তির দাবীতে ফুসে উঠে যুবসমাজ সহ এলাকাবাসি।