• মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০১:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম
ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত সম্পত্তি বেদখলে আপনার করণীয়, সম্পত্তি বেদখল কি? ভোলাহাটে কুরিয়ার সার্ভিসগুলো অনিয়মে ভরপুর; অতিষ্ঠ অনলাইন ব্যবসায়ীরা কুষ্টিয়ায় ট্রিপল মার্ডার, দায় স্বীকার করে এএসআই সৌমেনের জবানবন্দি আবু ত্বহা মোহাম্মদ আদনান ৫ দিন যাবত নিখোঁজ ৯ বছরের শিশু ধর্ষণ! চার মাসে অভিযুক্ত কে আটক করতে পারেনি গোমস্তাপুর থানা পুলিশ ৯ বছরের শিশু ধর্ষণ! চার মাসে অভিযুক্ত কে আটক করতে পারেনি গোমস্তাপুর থানা পুলিশ অটোমোবাইল শিল্প উন্নয়ন নীতিমালা মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত মাগুরায় খন্ডিত লাশের মাথা ও পা উদ্ধার, আটক-১ বরগুনার আমতলীতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান : জরিমানা ৬ হাজার টাকা।



কথা-কাটাকাটি, হাতাহাতির পর শটগান বের করে গুলি

Reporter Name / ০ Time View
Update : বুধবার, ২৪ মার্চ, ২০২১



মোঃরফিকুল ইসলাম মিঠু।। রাজধানীর দক্ষিণখানের আইনুসবাগে শটগানের গুলিতে আবদুর রশিদ (৩৫) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতা হিসেবে পরিচিত আবদুল হান্নান ওরফে (জাপানি)হান্নানসহ ছয়জনকে আটক করেছে। আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আবদুর রশিদের বাসার সামনে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, আবদুর রশিদ ওই এলাকার আবদুল মালেকের ছেলে। তিনি রড-সিমেন্টের ব্যবসা করতেন। এ ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ লোকজন হান্নানের বাসার সামনে রাখা তাঁর ব্যক্তিগত গাড়ি পুড়িয়ে দেয়।

উত্তরা বিভাগের উপ – পুলিশ কমিশনার মো. শহিদুল্লাহ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আবদুল হান্নানের সঙ্গে আবদুর রশিদের বিরোধ চলছিল। এর জের ধরেই আজ আবদুর রশিদের বাসার সামনে হান্নানের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়।

হান্নান তখন বাসা থেকে শটগান এনে রশিদকে একাধিক গুলি করেন। পরে আশপাশের বাসিন্দারা তাঁকে উদ্ধার করে স্থানীয় কেসি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

উপ – পুলিশ কমিশনার বলেন, ঘটনার পর হান্নানের বাসায় তল্লাশি চালিয়ে একটি শটগান ও একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। এগুলো লাইসেন্স করা কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আবদুর রশিদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।




আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category





%d bloggers like this: